সারাদেশ

নোয়াখালীতে ডিবি পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত, ওসিসহ আহত ৫

সাইফুর রহমান জনি

নোয়াখালী জেলার মাইজদী পৌর এলাকার পশ্চিম মাহদুরি গ্রামে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ইব্রাহিম খলিল ওরফে ভান্ডারি রুবেল (৩২) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ভোর ৪.০০ ঘটিকার দিকে সদর উপজেলার পশ্চিম মাহদুরি গ্রামের চাপা মিয়ার বাগানে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে এ বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় এলজি, একটি পাইপগান, ছয় রাউন্ড গুলি, দুটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ছোরা ও তিনটি রামদা উদ্ধার করে।নিহত মাদক ব্যবসায়ী রুবেল ঐ এলাকার আবুল কাশেম ভান্ডারীর ছেলে।ডিবি সূত্রে জানা গেছে নিহত রুবেল মাদক,অস্ত্র ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন ঘটনায় ১৬টি মামলার পলাতক আসামী ছিল।

গোয়েন্দা পুলিশের ওসি কামরুজ্জামান সিকদার জানান, নিহত রুবেল দীর্ঘদিন থেকে নোয়াখালীর প্রত্যন্ত অঞ্চল এবং এলাকা জুড়ে মাদক ও অস্ত্র কারবারি করে আসছে। গোপন সূত্রে বুধবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে ডিবি পুলিশ তাকে নোয়াখালী জেলার মাইজদী থেকে ৬০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে। পরে তার কাছে অস্ত্র ও আরও ইয়াবা রয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাতে তাকে নিয়ে পশ্চিম মাহদুরি এলাকার চাপা মিয়ার বাগান বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে পুলিশও আত্নরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। এতে দুই পক্ষের মধ্যে ১৫ মিনিট ব্যাপী গুলি বিনিময় চলে। এসময় রুবেল গুলিবিদ্ধ হয়। পরে রুবেলকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় এ সময় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি কামরুজ্জামান সিকদার, উপ-পরিদর্শক সায়েদ মিয়া, ওমর ফারুক, সহকারি উপ-পরিদর্শক মাসুদ আলম ও কনস্টেবল দেলোয়ার হোসেন গুরুতর আহত হন।এ ঘটনায় জড়িত অন্য মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে অভিযান ও মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ওসি (ডিবি) নোয়াখালী জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *