খেলা

নাভাসের পেনাল্টি প্রতিহত ও ইকার্ডির গোলে নকআউট পর্বে পিএসজি

রিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) ফের তাদের শ্রেষ্ঠত্বের কাছাকাছি ফিরলেও গতকাল গ্রুপ পর্বে অল্পের জন্য হোঁচট খাওয়া থেকে বেঁচেছে তারা। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে খর্ব শক্তির ক্লাব ব্রাগার বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় পাওয়া ম্যাচে ফরাসি জায়ান্টকে গোল খাওয়া থেকে বাঁচিয়েছেন গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। আর গোল করে দলকে জয়ের বন্দরে পৌছে দিয়েছেন মাউরো ইকার্দি। কস্টার্জিত এই জয়ের ফলে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই জায়াগা ‘এ’ গ্রুপ থেকে শেষ ১৬ নিশ্চিত করলো পিএসজি।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তুরস্কের গ্যালাতাসারেকে।
গ্রাক দেস প্রিন্সেসে অনুষ্ঠিত ম্যাচের প্রথমার্ধে ২১ মিনিটে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন ইকার্দি। ফলে সর্বশেষ ৭ ম্যাচ থেকে আট গোলের মালিক বনে যান তিনি। আর ‘এ’ গ্রুপে টানা চার ম্যাচে জয় নিয়ে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে প্যারিস জায়ান্টরা।

তবে গোল পরিশোধে মরিয়া প্রতিপক্ষ ক্লাবটি দুর্দান্ত পারফর্মেন্স দিয়ে কোনঠাসা করে রেখেছিল স্বাগতিকদের। এক পর্যায়ে গোল পরিশোধের সেরা সুযোগটিও পেয়ে যায় ব্রাগা। তবে ৭৬ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি থেকে তাদের গোল করতে দেননি পিএসজির গোল রক্ষক নাভাস। বদলী খেলোয়াড় এমবায়ে ডায়াগনের পেনাল্টির বলটি রুখে দিয়ে পিএসজির জয়কে অক্ষত রাখেন তিনি। গ্রুপ শীর্ষে থেকে শেষ ষোলতে নাম লেখায় পিএসজি। দুই সপ্তাহ আগে এই ক্লাবটিকেই তাদের মাটিতে ৫-০ গোলে হারিয়েছিল পিএসজি।

এদিকে গ্রুপের দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে গ্যালাতাসারেকে। ফলে গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলর পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল স্প্যানিশ জায়ান্টরা। রড্রিগোর হ্যাটট্রিক ও করিম বেনজেমার জোড়া গোলে বিশাল এই জয় পায় রিয়াল। তাদের হয়ে পেনাল্টি থেকে বাকী গোলটি করেছেন সার্জিও রামোস। আগের ম্যাচে রিয়ালের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করা ব্রাগা গতকাল এই হারের ফলে টুর্নামেন্ট থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েছে। আর তালিকার তলানীতেই থেকে গেছে তার্কিশ জায়ান্ট গালাতাসারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *